ঢাকা ১০:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ :

চসিকের ১ হাজার সেবককে শীতবস্ত্র দিলেন মেয়র রেজাউল

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ১০:১১:৩০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ জানুয়ারী ২০২৪ ৭৩ বার পড়া হয়েছে

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের এক হাজার রাত্রিকালীন সেবকদের মাঝে ৩৯ রেডিয়্যান্টযুক্ত’ শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

সোমবার টাইগারপাসস্থ চসিক কার্যালয়ে এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র রেজাউল বলেন চসিকের পরিচ্ছন্ন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরিশ্রমের ফলে চট্টগ্রাম এখন যে কোন সময়ের চেয়ে পরিচ্ছন্ন। দিনের বেলায় স্কুল ও অফিসগামী নাগরিকদের পরিচ্ছন্ন শহরে দিন শুরু করার সুযোগ করে দিতে এখন আমরা রাতে বর্জ্য সংগ্রহ শুরু করেছি। নাগরিকরা যদি দিনে যত্রতত্র ময়লা না ফেলে রাতে নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা ফেলে তাহলে দিনে পরিচ্ছন্ন পরিবেশে সবাই চলাচল করতে পারব।

২০২২ সালের কোরবানির ঈদের বর্জ্য সংগ্রহ শেষ করতে আমাদের লেগেছিল ৮ ঘন্টা। ২০২৩ সালে একই কাজ ৭ ঘন্টায় শেষ করি আমরা। অর্থ্যাৎ, দিন-দিনআমাদের সক্ষমতা বাড়ছে।

এছাড়া  আমরা নতুন টেন্সিং গ্রাউন্ড ও এসটিএস গড়ে তুলছি। ইউরোপ থেকে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ভূ-গর্ভস্থ বর্জাগার কিনছি আমরা। আমার মেয়াদেই বর্জ্য ব্যবস্থাপনাকে এমনভাবে ঢেলে সাজাবো যাতে বর্জ্য নাগরিকদের চোখে না পড়ে  সেন্ট্রো টেক্সট লিমিটেডের উপহার দেয়া এ বিশেষ পোষাকগুলো অন্ধকারে শ্রমিকদের কাজ করতে সাহায্য করবে বলে জানান চসিকের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা নৌবাহিনীর কমান্ডার লতিফুল হক কাজমি। সভায় উপস্থিত ছিলেন চসিকের সচিব খালেদ মাহমুদ ম্যালেরিয়া ও মশক নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা শরফুল ইসলাম মাহি উপ-প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদুল আলমসহ পরিচ্ছন্ন বিভাগের কর্মীরা।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

চসিকের ১ হাজার সেবককে শীতবস্ত্র দিলেন মেয়র রেজাউল

আপডেট সময় : ১০:১১:৩০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ জানুয়ারী ২০২৪

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের এক হাজার রাত্রিকালীন সেবকদের মাঝে ৩৯ রেডিয়্যান্টযুক্ত’ শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

সোমবার টাইগারপাসস্থ চসিক কার্যালয়ে এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র রেজাউল বলেন চসিকের পরিচ্ছন্ন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরিশ্রমের ফলে চট্টগ্রাম এখন যে কোন সময়ের চেয়ে পরিচ্ছন্ন। দিনের বেলায় স্কুল ও অফিসগামী নাগরিকদের পরিচ্ছন্ন শহরে দিন শুরু করার সুযোগ করে দিতে এখন আমরা রাতে বর্জ্য সংগ্রহ শুরু করেছি। নাগরিকরা যদি দিনে যত্রতত্র ময়লা না ফেলে রাতে নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা ফেলে তাহলে দিনে পরিচ্ছন্ন পরিবেশে সবাই চলাচল করতে পারব।

২০২২ সালের কোরবানির ঈদের বর্জ্য সংগ্রহ শেষ করতে আমাদের লেগেছিল ৮ ঘন্টা। ২০২৩ সালে একই কাজ ৭ ঘন্টায় শেষ করি আমরা। অর্থ্যাৎ, দিন-দিনআমাদের সক্ষমতা বাড়ছে।

এছাড়া  আমরা নতুন টেন্সিং গ্রাউন্ড ও এসটিএস গড়ে তুলছি। ইউরোপ থেকে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ভূ-গর্ভস্থ বর্জাগার কিনছি আমরা। আমার মেয়াদেই বর্জ্য ব্যবস্থাপনাকে এমনভাবে ঢেলে সাজাবো যাতে বর্জ্য নাগরিকদের চোখে না পড়ে  সেন্ট্রো টেক্সট লিমিটেডের উপহার দেয়া এ বিশেষ পোষাকগুলো অন্ধকারে শ্রমিকদের কাজ করতে সাহায্য করবে বলে জানান চসিকের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা নৌবাহিনীর কমান্ডার লতিফুল হক কাজমি। সভায় উপস্থিত ছিলেন চসিকের সচিব খালেদ মাহমুদ ম্যালেরিয়া ও মশক নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা শরফুল ইসলাম মাহি উপ-প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদুল আলমসহ পরিচ্ছন্ন বিভাগের কর্মীরা।