ঢাকা ১২:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাঙ্গাইলের মধুপুরে এক যুবকের রহস্য জনক মৃত্যু

আঃ হামিদ 
  • আপডেট সময় : ০৮:১০:০১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩ ৫৭ বার পড়া হয়েছে
টাঙ্গাইলের মধুপুর পৌরসভাধীন টেংরি কাঠালতলী মোড় গোরস্হান পাড়া এলাকার শাহজাহান আলীর বাসা থেকে সুশান্ত মদক(৩০) নামের এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে মধুপুর থানা পুলিশ।
শনিবার (২৩ডিসেম্বর) রাত সাড়ে  ১০ টার দিকে শাহজাহান আলীর বাসা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে মধুপুর থানা পুলিশ। তিনি ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট পৌরসভাধীন কাঁচারিপাড়া এলাকার সুনীল মদকের ছোট ছেলে শাহজাহান আলীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ৫/৬ মাস আগে সে আমাদের বাসার একটি রুম ভাড়া নিয়ে ফ্রিল্যান্সার  এর কাজ করতো সুশান্ত  শুক্রবার(২২ডিসেম্বর) রাত আনুমানিক ১০টার দিকে বাসায় এসে দরজা লাগিয়ে শুয়ে পড়ে। পরদিন শনিবার সারাদিন তাকে আর বাসা থেকে বের হতে কেউ দেখেননি বলে জানা যায় মৃত সুশান্ত মদকের ঘনিষ্ঠ বন্ধু সোহেল রানা ও সাইফুল ইসলাম জানান, বিকেল থেকে তাকে বারবার ফোন দিয়ে না পেয়ে খোঁজ নিতে আমরা বাসায় আসি। তার রুমের দরজা বন্ধ দেখে ডাকাডাকি শুরু করি কিন্তু ভিতর থেকে কোনো সারা না পেয়ে বাড়ির মালিককে বিষয়টি জানাই। বাসার লোকজনের নিকট জানতে পারি ভিতর দিয়ে আরেকটি দরজা আছে, পরবর্তীতে বাসার লোকজনের সহায়তায় ভিতরের দরজা দিয়ে ঢুকে বিছানায় তার মরদেহ দেখতে পাই
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সে হালুয়াঘাট থেকে এসে দীর্ঘদিন যাবত বন্ধুদের সাথে ফ্রিল্যান্সারের  কাজ করে যাচ্ছে।
খবর পেয়ে অত্র এলাকার ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো.বেশর আলী ফকির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
পরবর্তীতে বিষয়টি পুলিশকে জানালে মধুপুর থানার এসআই জোনায়েদ তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে লাশের সুরতহাল রেকর্ড করে থানায় নিয়ে যায়মুঠোফোনে খবর পেয়ে তার মা বাবা সহ পরিবারের লোকজন হালুযাঘাট থেকে রাতেই ঘটনাস্থলে এসে পৌছায়। মৃত সুশান্তের বাবা জানান, সে  গত শুক্রবার বিকাশের মাধ্যমে আমার কাছে ১০হাজার টাকা পাঠিয়েছে। কিন্তু আজ শনিবার সারাদিন তার সাথে কোনো যোগাযোগ হয়নি। সন্ধ্যার পরে মুঠোফোনের মাধ্যমে তার মৃত্যুর খবর পেয়ে আমরা হালুয়া ঘাট থেকে ছুটে আসি
বাসার মালিক শাহজাহান আলী টাঙ্গাইলের সখিপুরে আশা নামক এনজিওতে চাকরি করেন এবং সেখানেই থাকেন। বাসায় তার স্ত্রী তিন মেয়েকে নিয়ে বসবাস করেন। সে তার বাসার আরও দুটি রুম   ফ্রিল্যান্সারদের   কাছে ভাড়া দিয়েছেন বলে জানা যায় থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোল্লা আজিজুর রহমান জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। কোনো অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

টাঙ্গাইলের মধুপুরে এক যুবকের রহস্য জনক মৃত্যু

আপডেট সময় : ০৮:১০:০১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩
টাঙ্গাইলের মধুপুর পৌরসভাধীন টেংরি কাঠালতলী মোড় গোরস্হান পাড়া এলাকার শাহজাহান আলীর বাসা থেকে সুশান্ত মদক(৩০) নামের এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে মধুপুর থানা পুলিশ।
শনিবার (২৩ডিসেম্বর) রাত সাড়ে  ১০ টার দিকে শাহজাহান আলীর বাসা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে মধুপুর থানা পুলিশ। তিনি ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট পৌরসভাধীন কাঁচারিপাড়া এলাকার সুনীল মদকের ছোট ছেলে শাহজাহান আলীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ৫/৬ মাস আগে সে আমাদের বাসার একটি রুম ভাড়া নিয়ে ফ্রিল্যান্সার  এর কাজ করতো সুশান্ত  শুক্রবার(২২ডিসেম্বর) রাত আনুমানিক ১০টার দিকে বাসায় এসে দরজা লাগিয়ে শুয়ে পড়ে। পরদিন শনিবার সারাদিন তাকে আর বাসা থেকে বের হতে কেউ দেখেননি বলে জানা যায় মৃত সুশান্ত মদকের ঘনিষ্ঠ বন্ধু সোহেল রানা ও সাইফুল ইসলাম জানান, বিকেল থেকে তাকে বারবার ফোন দিয়ে না পেয়ে খোঁজ নিতে আমরা বাসায় আসি। তার রুমের দরজা বন্ধ দেখে ডাকাডাকি শুরু করি কিন্তু ভিতর থেকে কোনো সারা না পেয়ে বাড়ির মালিককে বিষয়টি জানাই। বাসার লোকজনের নিকট জানতে পারি ভিতর দিয়ে আরেকটি দরজা আছে, পরবর্তীতে বাসার লোকজনের সহায়তায় ভিতরের দরজা দিয়ে ঢুকে বিছানায় তার মরদেহ দেখতে পাই
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সে হালুয়াঘাট থেকে এসে দীর্ঘদিন যাবত বন্ধুদের সাথে ফ্রিল্যান্সারের  কাজ করে যাচ্ছে।
খবর পেয়ে অত্র এলাকার ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো.বেশর আলী ফকির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
পরবর্তীতে বিষয়টি পুলিশকে জানালে মধুপুর থানার এসআই জোনায়েদ তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে লাশের সুরতহাল রেকর্ড করে থানায় নিয়ে যায়মুঠোফোনে খবর পেয়ে তার মা বাবা সহ পরিবারের লোকজন হালুযাঘাট থেকে রাতেই ঘটনাস্থলে এসে পৌছায়। মৃত সুশান্তের বাবা জানান, সে  গত শুক্রবার বিকাশের মাধ্যমে আমার কাছে ১০হাজার টাকা পাঠিয়েছে। কিন্তু আজ শনিবার সারাদিন তার সাথে কোনো যোগাযোগ হয়নি। সন্ধ্যার পরে মুঠোফোনের মাধ্যমে তার মৃত্যুর খবর পেয়ে আমরা হালুয়া ঘাট থেকে ছুটে আসি
বাসার মালিক শাহজাহান আলী টাঙ্গাইলের সখিপুরে আশা নামক এনজিওতে চাকরি করেন এবং সেখানেই থাকেন। বাসায় তার স্ত্রী তিন মেয়েকে নিয়ে বসবাস করেন। সে তার বাসার আরও দুটি রুম   ফ্রিল্যান্সারদের   কাছে ভাড়া দিয়েছেন বলে জানা যায় থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোল্লা আজিজুর রহমান জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। কোনো অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও তিনি জানান।