ঢাকা ১১:৪৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ :

জেলের জালে ধরা পড়েছে ২৪ কেজির দুইটি দাঁতিনা মাছ এক লাখ চব্বিশ হাজার টাকায় বিক্রি

কলাপাড়া প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় : ০১:৩৮:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৪ বার পড়া হয়েছে

পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় জেলের জালে ধরা পড়েছে আধা মণ ওজনের দুইটি দাঁতিনা মাছ। এক লাখ চব্বিশ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে মাছ দুইটি। এফবি মায়ের দোয়া নামের একটি ট্রলারে মাছদুটি পাওয়া যায়।

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ২ টার দিকে মৎস্য বন্দর মহিপুরের কুতুবদিয়া ফিস এ মাছ দুটি বিক্রির জন্য উঠানো হয়। এ সময় ডাকের মাধ্যমে মাছদুটি কিনে নেয় মৎস্য পাইকার সজীব হোসেন।এফবি মায়ের দোয়া ট্রলারে এই মাছ দুইটি গত তিন দিন আগে গভীর সাগরে ধরা পড়ে।

ট্রলার মাঝি লক্ষি মিয়া বলেন, সচারাচর দাঁতিনা মাছগুলো তেমন একটা পাওয়া যায়না। আমরা সাগরে ইলিশের জাল ফেলেছিলাম তখন হঠাৎ দেখি বড় কোন মাছ, প্রথমে ভেবেছিলাম কোরাল মাছ পরে কাছাকাছি গিয়ে দেখি দুটি দাতিনা মাছ।

মহিপুর কুতুবদিয়া ফিস এর মালিক বলেন, দাঁতিনা মাছদুটি ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা মণ হিসাবে, কেজি প্রতি ৬ হাজার টাকা দরে ২৪ কেজি ৬৫০ গ্রাম ওজনের দাতিনা মাছদুটি বিক্রি হয় ১ লাখ ২৫ হাজার টাকায়।

মৎস্য পাইকার সবজি হোসেন বলেন, দাঁতিনা মাছ মূলত সচারাচর ঘাটে তেমন একটা আসেনা। আজ হঠাৎ দেখে ডাকের মাধ্যমে কিনে নিলাম। মাছ দুটি ৬ হাজার টাকা কেজি দরে কিনেছি, এখন বিক্রির জন্য ঢাকায় পাঠাবো। আশা করছি ভালো দামে বিক্রি করতে পারবো।
কলাপাড়া উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা জানান, নদ-নদী এবং সাগরের কাছাকাছি এলাকায় এই প্রজা‌তির মাছ পাওয়া যায় না ,এরা মূলত গভীর সাগরের মাছ।এ মা‌ছের ফুলকা বি‌দে‌শে রপ্তা‌নি করা হয়, যা দি‌য়ে ওষুধ তৈ‌রি করা হয়। মহিপুর মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে দাঁতিনা ভোল মাছ তেমন একটা দেখা যায়না। তবে এই প্রজাতির মাছগুলো খুবই সুস্বাদু।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জেলের জালে ধরা পড়েছে ২৪ কেজির দুইটি দাঁতিনা মাছ এক লাখ চব্বিশ হাজার টাকায় বিক্রি

আপডেট সময় : ০১:৩৮:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় জেলের জালে ধরা পড়েছে আধা মণ ওজনের দুইটি দাঁতিনা মাছ। এক লাখ চব্বিশ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে মাছ দুইটি। এফবি মায়ের দোয়া নামের একটি ট্রলারে মাছদুটি পাওয়া যায়।

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ২ টার দিকে মৎস্য বন্দর মহিপুরের কুতুবদিয়া ফিস এ মাছ দুটি বিক্রির জন্য উঠানো হয়। এ সময় ডাকের মাধ্যমে মাছদুটি কিনে নেয় মৎস্য পাইকার সজীব হোসেন।এফবি মায়ের দোয়া ট্রলারে এই মাছ দুইটি গত তিন দিন আগে গভীর সাগরে ধরা পড়ে।

ট্রলার মাঝি লক্ষি মিয়া বলেন, সচারাচর দাঁতিনা মাছগুলো তেমন একটা পাওয়া যায়না। আমরা সাগরে ইলিশের জাল ফেলেছিলাম তখন হঠাৎ দেখি বড় কোন মাছ, প্রথমে ভেবেছিলাম কোরাল মাছ পরে কাছাকাছি গিয়ে দেখি দুটি দাতিনা মাছ।

মহিপুর কুতুবদিয়া ফিস এর মালিক বলেন, দাঁতিনা মাছদুটি ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা মণ হিসাবে, কেজি প্রতি ৬ হাজার টাকা দরে ২৪ কেজি ৬৫০ গ্রাম ওজনের দাতিনা মাছদুটি বিক্রি হয় ১ লাখ ২৫ হাজার টাকায়।

মৎস্য পাইকার সবজি হোসেন বলেন, দাঁতিনা মাছ মূলত সচারাচর ঘাটে তেমন একটা আসেনা। আজ হঠাৎ দেখে ডাকের মাধ্যমে কিনে নিলাম। মাছ দুটি ৬ হাজার টাকা কেজি দরে কিনেছি, এখন বিক্রির জন্য ঢাকায় পাঠাবো। আশা করছি ভালো দামে বিক্রি করতে পারবো।
কলাপাড়া উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা জানান, নদ-নদী এবং সাগরের কাছাকাছি এলাকায় এই প্রজা‌তির মাছ পাওয়া যায় না ,এরা মূলত গভীর সাগরের মাছ।এ মা‌ছের ফুলকা বি‌দে‌শে রপ্তা‌নি করা হয়, যা দি‌য়ে ওষুধ তৈ‌রি করা হয়। মহিপুর মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে দাঁতিনা ভোল মাছ তেমন একটা দেখা যায়না। তবে এই প্রজাতির মাছগুলো খুবই সুস্বাদু।